এবার আসছে বাংলাদেশের ডিজিটাল মানচিত্র

যে কোন জায়গায় কোন কিছু নির্মাণ করতে হলে তা সঠিকভাবে চিহ্নিত করা প্রয়োজন৷ কিন্তু বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ অবকাঠামোগত কোন মানচিত্র না থাকায় সেই কাজটি বেশ কঠিন হয়ে পড়ে৷ আগামী কয়েক বছরের মধ্যে আসছে একটি ডিজিটাল মানচিত্র৷

গুগল আর্থ এবং ম্যাপ আমাদের কাছে বেশ পরিচিত৷ কোন দেশ বা জায়গার ছবি দেখে তা চিহ্নিত করার জন্য গুগল আমাদের ভরসা৷ কিন্তু এতে বাংলাদেশের কোন জায়গা চিহ্নিত করতে গেলে তেমন কিছু দেখা যায় না৷ কারণ আমাদের দেশের কোন ডিজিটাল মানচিত্র না থাকায় গুগল আর্থে তা ধরা পড়ে না৷ সেই মানচিত্র তৈরির কাজ এবার শুরু হয়েছে৷ গোটা দেশের প্রতিটি জায়গা সঠিকভাবে নির্ণয় করে তার বিস্তারিত তথ্য এবং ছবি থাকবে সেই মানচিত্রে৷ এই প্রকল্পের পরিচালক কর্নেল মাহমুদুন নবী ডিডাব্লিউকে এই মানচিত্র তৈরির কারণ জানাতে গিয়ে বললেন, ‘‘আমরা মূলত বাংলাদেশের সকল অবকাঠামোর একটি সচিত্র মানচিত্র তৈরি করছি৷ এটা তৈরি হয়ে গেলে সকলেই দেশের প্রত্যেকটি জায়গার গঠন-প্রকৃতি এবং অবকাঠামোর অবস্থা একটি মানচিত্রের আকারে দেখতে পাবে৷ ধরুণ, সরকার রাস্তা, সেতু কিংবা কোন ব্যক্তি বাড়ি নির্মাণ করতে চাইলো৷ আমাদের মানচিত্রে সকল রাস্তা এবং সেতুর একটি সচিত্র বিবরণ থাকবে, তার ওপর ভিত্তি করে সড়ক পথ নির্মাণ কিংবা সম্প্রসারণের একটি পরিকল্পনা নেওয়া সম্ভব হবে৷”

এই ডিজিটাল মানচিত্র তৈরির কাজ করছে বাংলাদেশের জরিপ অধিদপ্তর এবং জাপানের আন্তর্জাতিক সহযোগিতা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান জাইকা৷ বিগত ২০০৭ সালে এই প্রকল্পের কাজ শুরু হয়৷ আগামী ২০১৬ সালের মধ্যে এই ডিজিটাল মানচিত্র তৈরির কাজ শেষ হবে৷ এর জন্য বাজেট ধরা হয়েছে ১৮১ কোটি টাকা৷ বর্তমানে এরিয়াল অর্থাৎ আকাশ থেকে দেশের প্রতিটি জায়গার ছবি তোলার কাজ চলছে৷ এরপর শুরু হবে প্রতিটি জায়গা এবং অবকাঠামোর ব্যাপারে তথ্য সংগ্রহ এবং সন্নিবেশনের কাজ, জানালেন মাহমুদুন নবী৷

এই ম্যাপ তৈরির পর সকলের জন্যই সেটা উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে৷ গুগল ম্যাপে যেভাবে প্রত্যেকটি জায়গার অবস্থান এবং সেখানে অবস্থিত বাড়ি ঘরের ছবি দেখা যায়, নতুন ডিজিটাল ম্যাপেও বাংলাদেশের প্রতিটি জায়গা সেভাবে দেখা যাবে৷ কেবল বাড়ি ঘর নয়, প্রতিটি স্থানের গুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামোগুলোর বিস্তারিত তথ্যাবলীও নতুন ডিজিটাল মানচিত্রে রাখার চেষ্টা করা হচ্ছে৷ এই ক্ষেত্রে গুগল ম্যাপের চেয়েও এই মানচিত্র অনেক বেশি আধুনিক এবং তথ্যবহুল হবে বলে দাবি কর্নেল মাহমুদুন নবীর৷

ডিজিটাল এই মানচিত্র সময়ের সঙ্গে সঙ্গে প্রয়োজনে পরিবর্তনও করা যাবে৷ বিশেষজ্ঞদের মতে, এই ধরণের ডিজিটাল মানচিত্র সংক্ষিপ্ত সময়ের মধ্যে উন্নয়ন পরিকল্পনা প্রণয়ন এবং তা বাস্তবায়নে খুবই সহায়ক৷

প্রতিবেদক ঃ মোঃ নূরে আলম সোহাগ

সম্পাদক ঃ মোঃ সুমন আখন্দ  (সুভ)